× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

এই ম্যাচ কেবলই আনুষ্ঠানিকতার

প্রবা প্রতিবেদক

প্রকাশ : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৩:৫২ পিএম

আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৬:৪০ পিএম

এই ম্যাচ কেবলই আনুষ্ঠানিকতার

‘ভারত ম্যাচে আলাদা কোনো প্রত্যাশা নেই’- বুধবার ছুটি কাটিয়ে অনুশীলনে ফেরার দিন এমনটাই বলেন তাওহিদ হৃদয়। কথাটা বলার কারণ ভারত ম্যাচ বাংলাদেশের জন্য পরিণত হয়েছে আনুষ্ঠানিকতার। ম্যাচের ফল প্রভাব ফেলবে না টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের ভাগ্যে। কারণ এই ম্যাচে নামার আগেই বাংলাদেশের এশিয়া কাপের সামনে এগুনোর সম্ভাবনা শেষ। তাওহিদ হৃদয়ের ভাষ্যমতে বাংলাদেশের চাওয়া পুরো টুর্নামেন্টে করা ভুলগুলো শেষ ম্যাচে শুধরে নিয়ে ফেরত আসা।

ভারতের বিপক্ষে আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচে বাংলাদেশ শিবিরে থাকবেন না অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম। ভারত ম্যাচের বাংলাদেশ একাদশে মিডল অর্ডার থাকবে একটু নড়বড়ে। জায়গাটায় বাড়তি দায়িত্ব থাকবে তরুণ তাওহিদ হৃদয়ের ওপর। শ্রীলঙ্কায় দলের সঙ্গে যোগ না দেওয়ায় বিকল্প উইকেটরক্ষকের ওপর নির্ভর করতে হবে টিম ম্যানেজমেন্টকে। বিকল্প হিসেবে মুশফিকের বিকল্প হতে পারেন লিটন দাস অথবা এনামুল হক বিজয়। সুপার ফোরে দলে যোগ দেওয়া লিটনের একাদশে থাকা নিশ্চিত। মেইক শিফট ওপেনারের ধারণা থেকে বেরিয়ে এলে প্রমোশন হতে পারে লিটনের। সেক্ষেত্রে তিন নম্বর পজিশনে ব্যাট হাতে দেখা যেতে পারে বিজয়কে। আফগানিস্তান ম্যাচের আগে হুট করে ডাক পাওয়া বিজয় এখনও সুযোগ পাননি কোনো ম্যাচের একাদশে।

আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচে বাংলাদেশের সামনে সুযোগ থাকবে সাইড বেঞ্চ পরখ করে দেখার। এশিয়া কাপে নিজের অভিষেক ম্যাচ খেলা তানজিদ হাসান তামিম ফিরলে কপাল পুড়তে পারে নাঈম শেখের। এশিয়া কাপের চার ম্যাচে সুযোগ পেয়েও নিজেকে প্রমাণ করতে না পারায় তার ওপর ‘নাখোশ’ ক্রিকেট ভক্তরা। এ ছাড়া ভালো কিছু করার সুযোগ থাকার পরও প্রমাণ করতে না পারায় একাদশে জায়গা হারাতে পারেন তিনি। অন্যদিকে ভারতকে স্পিনে ঘায়েল করার পরিকল্পনায় লোয়ার মিডল অর্ডারে শেখ মাহেদির জায়গা মিলতে পারে একাদশে। 

এশিয়া কাপের দ্বিতীয় ম্যাচ থেকে একই পেস আক্রমণে ভরসা রেখেছে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট। আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচে পেস ইউনিটে পরিবর্তনের সম্ভাবনা প্রবল। সেক্ষেত্রে প্রথমবার দলে ডাক পাওয়া তানজিম হাসান সাকিব পেতে পারেন নিজের ওয়ানডে অভিষেক ক্যাপ। সঙ্গে ফিরতে পারেন মুস্তাফিজুর রহমান। কলম্বোর প্রেমাদাসা স্পিন স্বর্গে স্পিনাররাই হবেন মূল ভরসা। একাদশে কমতে পারে পেসার সংখ্যা।

সব মিলিয়ে টুর্নামেন্ট বিচারে ম্যাচ গুরুত্বহীন হলেও নিজেদের পরখ করে নেওয়ার সুযোগ থাকবে বাংলাদেশের সামনে। এশিয়া কাপের পর নিউজিল্যান্ড সিরিজে বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার থাকবেন বিশ্রামে। বড় মঞ্চে ক্রিকেটাররা কেমন করেন সেটা দেখার এটাই শেষ সুযোগ। বাংলাদেশের সামনে যেমন সাইড বেঞ্চ দেখার সুযোগ, ভারতের সামনেও আছে একই সুযোগ।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে স্পিন দাপটে পাওয়া দারুণ জয়ে ফাইনাল নিশ্চিত ভারতের। টানা খেলার ক্লান্তি কাটাতে বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় সারির একাদশ নামাবে। এই সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যে জানিয়েছে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। ফলে বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতের একাদশ হবে খানিকটা দুর্বল। তবে আইপিএলের মতো টুর্নামেন্টে নিয়মিত খেলা ভারতীয় ক্রিকেটাররা বড় পরীক্ষা নেবে সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।

সুপার ফোরের সব ম্যাচ হচ্ছে রানাসিংহে প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে। চিরাচরিতভাবে স্পিন দুর্গ হিসেবে প্রসিদ্ধ কলম্বোর এই মাঠ। ফলে ম্যাচ জিততে দুই দলকে নির্ভর করতে হবে স্পিনারদের ওপর। শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে স্পিন বিষে নীল করেছে ভারত। পাকিস্তানকেও ঘায়েল করেছে স্পিনে। বিশেষ করে কুলদ্বীপ যাদব ছড়ি ঘোরান দুই দলের ব্যাটিং লাইনআপের বিপক্ষে। বাংলাদেশি ব্যাটারদের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ ওই কুলদ্বীপ যাদবের স্পিন সামলানো। 

স্পিননির্ভর উইকেটে বাংলাদেশ দলের মূল অস্ত্র হতে পারেন স্পিনার নাসুম আহমেদ ও অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ইনিংস শুরুর দায়িত্ব মেহেদি হাসান মিরাজের কাঁধে না উঠলে তিনিও হবেন মূল শক্তি। তিন স্পিনারের সঙ্গে বাংলাদেশ একাদশে থাকতে পারে দুই পেসার। ভারত ম্যাচে রোটেশন পলিসি নিলে হয়তো সাইড বেঞ্চে থাকতে পারেন তাসকিন-শরিফুলরা। তানজিম সাকিব-মুস্তাফিজদের দেখা যেতে পারে ভারত ম্যাচে।

শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের নেই এশিয়া কালের ফাইনালে ওঠার কোনো সুযোগ। তাই বাংলাদেশের জন্য এই ম্যাচে কাজ শুধু নিজেদের পরখ করে নেওয়ার। ম্যাচ জিতে বিশ্বকাপের আগে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ।


শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: [email protected]

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা