× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

জাতীয় সংসদ

জিএম কাদেরকে বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে চায় জাপা

প্রবা প্রতিবেদক

প্রকাশ : ১৮ জানুয়ারি ২০২৪ ১৯:৫৫ পিএম

আপডেট : ১৮ জানুয়ারি ২০২৪ ২১:০৫ পিএম

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। ছবি : সংগৃহীত

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। ছবি : সংগৃহীত

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান জিএম কাদের বিরোধীদলীয় নেতা হচ্ছেন। বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) জাপার সংসদীয় দলের সভায় জিএম কাদেরকে জাপার সংসদীয় দলনেতা করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। একই সঙ্গে ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদকে উপনেতা এবং জাপা মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুকে চিফ হুইপ নির্বাচিত করা হয়েছে। জাতীয় সংসদ ভবনে বিরোধীদলীয় উপনেতার কার্যালয়ে এই সভা হয়। সভায় চেয়ারম্যান, মহাসচিব ছাড়াও জাপার নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

উপস্থিত নেতারা জানান, এবারও দ্বিতীয় সর্বোচ্চসংখ্যক আসন পেয়েছে জাপা। সে হিসাবে তারাই বিরোধী দলের আসনে বসছে। বৃহস্পতিবারের সভার সিদ্ধান্ত স্পিকারকে জানিয়ে দেওয়া হবে। এরপর স্পিকার বিধিমোতাবেক সিদ্ধান্ত নেবেন।

সভা শেষে মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, ‘জাতীয় পার্টি বিরোধী দলের আসনে বসছে, এটা নিশ্চিত। কার্যপ্রণালি বিধি অনুযায়ী অন্য কারও সংসদে বিরোধী দল হওয়ার সুযোগ নেই। আমরা সংসদে বিরোধীদলীয় ভূমিকা পালন করব। জনগণের কথা সংসদে তুলে ধরব।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের সংসদীয় সভায় বিরোধী দল হিসেবে জাপা কীভাবে আরও কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে, সেসব বিষয়ে কথা হয়েছে। দলের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে দলীয় ফোরামে আলোচনা হবে।’

একই কথা জানান সভায় উপস্থিত জাপার কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার।

নেতারা বলেন, জাপা রিবোধী দল হলে সংসদীয় দলের নেতা হিসেবে জিএম কাদের বিরোধীদলীয় নেতা, আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বিরোধীদলীয় উপনেতা এবং মুজিবুল হক চুন্নু বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ নির্বাচিত হবেন। জাপার সংসদীয় দলের সভায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, সভায় সংরক্ষিত নারী আসন এবং দলের চলমান সংকট নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তা ছাড়া কয়েকটি সংসদীয় কমিটিও চাইবে জাপা, যেসব কমিটির সভাপতি হবেন জাপার এমপিরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন এমপি জানান, আমাদের চাওয়া অন্তত পাঁচটি সংসদীয় কমিটির প্রধান হবেন জাপার এমপিরা। 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি ১১টি আসনে জয়লাভ করেছে। নতুন সংসদে বিরোধী দলের আসনে কে বসবেন তা নিয়ে সৃষ্ট ধোঁয়াশার মধ্যে বৃহস্পতিবার জাতীয় পার্টির সংসদীয় দলের বৈঠকে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো। সংরক্ষিত নারী আসন বাদে একাদশ সংসদে জাতীয় পার্টির আসন ছিল ২৩টি। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে তাদের প্রার্থী ছিল ২৮৩ আসনে। এর মধ্যে ২৬টি আসনে আওয়ামী লীগ তাদের ছাড় দিয়েছিল। এই ২৬ আসনে নৌকার প্রার্থী রাখা হয়নি। কিন্তু বেশিরভাগ আসনে আওয়ামী লীগ নেতারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে টক্কর দেওয়ায় শেষ পর্যন্ত ছাড় পাওয়া আসনের অর্ধেকেও জয় পায়নি জাতীয় পার্টির লাঙ্গল। অধিকাংশ আসনে লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থীদের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। মাত্র ১১ আসনে জয়লাভ করে জাতীয় সংসদে পরপর দুবার বিরোধী দল থাকা জাতীয় পার্টি। 

এবারের নির্বাচনে ২২৩টি আসনে জয় পেয়েছেন নৌকার প্রার্থীরা। আর জোটগতভাবে নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়ী হয়েছেন মোট ২২৫ জন। এই নিরঙ্কুশ জয়ে টানা চতুর্থবারের মতো সরকার গঠন করেছে আওয়ামী লীগ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আসন পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। ৬২ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। তাদের ৫৯ জনই আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের শরিকদের মধ্যে জাসদ একটি, ওয়ার্কার্স পার্টি একটি এবং একসময় বিএনপির জোটে থাকা কল্যাণ পার্টি একটি আসন পেয়েছে।

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: [email protected]

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা