× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

সড়কে নিরাপত্তা বাড়াতে আহ্ছানিয়া মিশনের ৭ সুপারিশ

প্রবা প্রতিবেদক

প্রকাশ : ০৩ এপ্রিল ২০২৪ ১৫:২০ পিএম

আপডেট : ০৩ এপ্রিল ২০২৪ ১৬:০০ পিএম

ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের পক্ষে সড়ক নিরাপত্তায় সাত দফায় উত্থাপন করেন প্রতিষ্ঠানটির রোড সেফটি প্রকল্পের সমন্বয়কারী শারমিন রহমান। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর শ্যামলীতে অবস্থিত ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন স্বাস্থ্য সেক্টরে। প্রবা ফটো

ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের পক্ষে সড়ক নিরাপত্তায় সাত দফায় উত্থাপন করেন প্রতিষ্ঠানটির রোড সেফটি প্রকল্পের সমন্বয়কারী শারমিন রহমান। বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর শ্যামলীতে অবস্থিত ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন স্বাস্থ্য সেক্টরে। প্রবা ফটো

পবিত্র ঈদুল ফিতরসহ সব সময় সড়ক ব্যবহারকারীরা যাতে নিরাপদে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারে, এ জন্য সরকারের কাছে সাত দফা সুপারিশ উত্থাপন করেছে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন। 

বুধবার (৩ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর শ্যামলীতে অবস্থিত ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন স্বাস্থ্য সেক্টর আয়োজিত ‘সড়ক নিরাপত্তা জোরদারকরণে গণমাধ্যমের ভূমিকা’ শীর্ষক সভায় এ সুপারিশগুলো উত্থাপন করা হয়। প্রতিষ্ঠানটির রোড সেফটি প্রকল্পের সমন্বয়কারী শারমিন রহমান এসব সুপারিশ উত্থাপন করেন।

সুপারিশগুলো হলো এক. সড়কে দুর্ঘটনার একটি অন্যতম কারণ হলো যানবাহনের অনিয়ন্ত্রিত গতি। সড়ক ও পরিবহনের ধরন অনুযায়ী গতি নির্ধারণ ও ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত গাইডলাইন অতিসত্বর প্রণয়ন এবং বাস্তবায়ন করা। দুই. মোটরসাইকেলচালক ও আরোহী উভয়েরই মানসম্মত হেলমেট ব্যবহার নিশ্চিত করতে এ সংক্রান্ত এনফোর্সমেন্ট গাইডলাইন প্রণয়ন করা। তিন. যানবাহনে চালকসহ সকল যাত্রীর সিটবেল্ট ব্যবহার সংক্রান্ত গাইডলাইন প্রণয়ন করা। পাশাপাশি মোটরযানে (বিশেষ করে কার/জিপ/মাইক্রোবাসে) শিশু সুরক্ষার বিষয়টি বিবেচনায় এনে শিশুদের জন্য উপযুক্ত শিশু সুরক্ষিত আসন ব্যবস্থা প্রচলন সংক্রান্ত বিধিবিধান জারি করা। চার. মদ্যপ অবস্থায় বা নেশা জাতীয় দ্রব্য সেবন করে মোটরযান পরিচালনা না করা সংক্রান্ত বিধিবিধান বাস্তবায়ন করতে হবে, যাতে করে কেউ মদ্যপ অবস্থায় মোটরযান চালিয়ে সড়ক দুর্ঘটনা না ঘটায়। পাঁচ. সড়ক দুর্ঘটনার তথ্য নিয়ে যেহেতু বিভ্রান্তি রয়েছে, সেহেতু সড়ক দুর্ঘটনার সঠিক তথ্য সংগ্রহ ও প্রদানে আন্তর্জাতিক ব্যবস্থাপনাগুলো বিবেচনায় এনে কেন্দ্রীয়ভাবে তথ্য সংরক্ষণ ও সরবরাহ ব্যবস্থা চালু করা। ছয়. যেহেতু বর্তমান সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮-এ সড়ক ব্যবহারকারীর নিরাপত্তা বিষয়টি অনুপস্থিত, সেহেতু বিশ্বব্যাপী সমাদৃত সেইফ সিস্টে অ্যাপ্রোচের আদলে সমন্বিত সড়ক নিরাপত্তা আইন প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করা। সাত. সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাস এবং এ সংক্রান্ত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সড়ক নিরাপত্তা আইন বাস্তবায়নকারী সংস্থাসমূহের মধ্যে কার্যকর সমন্বয় সাধনের জন্য একটি জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কর্তৃপক্ষ গঠন করা।

সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন স্বাস্থ্য ও ওয়াশ সেক্টরের পরিচালক ইকবাল মাসুদ। বক্তৃতায় তিনি বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) তথ্যানুযায়ী, সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশে বছরে ৩১ হাজার ৫৭৮ জনের মৃত্যু হয়। এ মৃত্যুর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। ঈদ বা যে কোনো উৎসবে সড়ক দুর্ঘটনার হার আরও বেড়ে যায়। সেই সঙ্গে বাড়ে মৃত্যু ও আহতের সংখ্যাও। এসব দিক বিবেচনা নিয়ে উত্থাপিত সুপারিশসমূহ বাস্তবায়নে সরকারের প্রতি দাবি জানান তিনি। 

তবে সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করায় সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ইকবাল মাসুদ। ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, সরকার সড়ক ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে একটি সড়ক নিরাপত্তা আইন প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে। ইতোমধ্যে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি কমিটি গঠন করেছে। ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন আশা করে সরকার দ্রুত একটি কার্যকারী আইন প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করবে। সেই সঙ্গে সবাইকে এই ঈদযাত্রায় নিরাপদে সড়ক ব্যবহার করারও আহ্বান জানান তিনি।

সভায় ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন রোড সেফটি প্রকল্পের অ্যাডভোকেসি অফিসার (পলিসি) জেরিন আফরোজ, অ্যাডভোকেসি অফিসার (কমিউনিকেশন) তরিকুল ইসলামসহ সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: [email protected]

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা