× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হওয়ার অভিযোগ কুবি শিক্ষকের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

প্রকাশ : ৩০ মে ২০২৪ ২০:০৩ পিএম

আপডেট : ৩০ মে ২০২৪ ২০:১৩ পিএম

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। ছবি : সংগৃহীত

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। ছবি : সংগৃহীত

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ইংরেজি বিভাগের এক শিক্ষককে সহকারী অধ্যাপক পদে স্থায়ী না করে বাইরের প্রার্থীকে নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। স্থায়ী পদ থেকে বঞ্চিত ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক (আপগ্রেডেড) মোহাম্মদ আকবর হোসেন এই অভিযোগ করেন।

মঙ্গলবার (২৮ মে) ‘ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করা এবং অন্যায় সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা’ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর চিঠি দেন তিনি।

ওই চিঠি থেকে জানা যায়, মোহাম্মদ আকবর হোসেন বর্তমানে শিক্ষা ছুটি নিয়ে পিএইচডি প্রোগ্রামে যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় স্টেট ইউনিভার্সিটিতে আছেন। এর আগে তিনি ২০১৩ সালের ১ জুলাই কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে প্রভাষক পদে যোগ দেন এবং ২০১৬ সালে সহকারী পদে আপগ্রেডেড হন।

২০২২ সালের ২ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে ‘সহকারী অধ্যাপক’ স্থায়ী পদের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করা হলে সহকারী অধ্যাপকের স্থায়ী পদের জন্য ২১ নভেম্বর আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০২৩ সালের ১৮ এপ্রিল বোর্ড ডাকা হয়। এই বোর্ডের সিদ্ধান্ত প্রায় দেড় বছরেও আকবর হোসেনকে জানায়নি প্রশাসন।

তিনি লিখেছেন, ‘নানা সূত্রমতে আমি জানতে পেরেছি, বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে আমাকে বাদ দিয়ে বাইরে থেকে সম্পূর্ণ নতুন একজনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। সিলেকশন বোর্ড এবং সিন্ডিকেটের এমন সিদ্ধান্ত আমাকে হতবাকই শুধু করেনি, করেছে সংক্ষুব্ধ। সিলেকশন বোর্ডের এমন সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ বিধিবহির্ভূত এবং কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রচলিত আইন ও নর্মসের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।’

তাকে স্থায়ী না করার ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রচলিত প্র্যাকটিস ভাঙা হয়েছে বলে তিনি চিঠিতে উল্লেখ করে লেখেন, কুবির (এবং অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের) প্রচলিত প্র্যাকটিস হলো- স্থায়ী পদ সৃষ্টি হলে জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে বিভাগে অস্থায়ী (আপগ্রেডেড) পদে যিনি আছেন তাকে স্থায়ী করা। কিন্তু আমার ক্ষেত্রে প্রশাসন যা করল তা শুধু যে অন্যায় তা নয়, এটি অভূতপূর্ব। সুস্পষ্টত, আমাকে আমার ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে।

আশা করি, আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আমার প্রতি যে অন্যায় করা হয়েছে তা পুনর্বিবেচনা করে আমার স্থায়ী পদ আমাকে ফিরিয়ে দেবেন। এতে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাম্প্রতিক সময়ে যে ভাবমূর্তির সংকটে পড়েছে, তার কিছু হলেও লাঘব হবে বলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।

এমন কোনো চিঠি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আমিরুল হক চৌধুরী পেয়েছে কি না জানতে চেয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে হলে তিনি ফোন ধরেননি।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এএফএম আবদুল মঈন বলেন, ‘এটা ওপেন পোস্ট ছিল। সেখানে যে কেউ অ্যাপ্লাই করতে পারে। বোর্ড যোগ্যতা দেখে নিয়োগ দিয়েছে। এই নিয়োগে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত হয়েছে। কেউ আপত্তি তোলেনি।’

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: [email protected]

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা