× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

‘জোড়াতালি’ দিয়ে মধ্যবিত্তদের ইফতার

সাইফুল হক মোল্লা দুলু, মধ্যাঞ্চল

প্রকাশ : ২২ মার্চ ২০২৪ ২০:৩১ পিএম

আপডেট : ২২ মার্চ ২০২৪ ২০:৪৯ পিএম

ইফতারসামগ্রী কিনছে ক্রেতারা। কিশোরগঞ্জ শহরের একটি রেস্তোরাঁয় শুক্রবার তোলা। প্রবা ফটো

ইফতারসামগ্রী কিনছে ক্রেতারা। কিশোরগঞ্জ শহরের একটি রেস্তোরাঁয় শুক্রবার তোলা। প্রবা ফটো

ইফতারে মুখরোচক খাবার অনেকের পছন্দ। তবে এ ধরনের খাবারের জোগান দেওয়াও কষ্টের। অনেকেরই আয়ের বিপরীতে খাবারের দামের তারতম্যে ক্রয়ক্ষমতায় টান পড়ে। এমন মানুষদের বেশিরভাগই মধ্যবিত্ত শ্রেণির। কিশোরগঞ্জের বিভিন্ন ইফতার বাজার ঘুরে এর কিছুটা ধারণা পাওয়া গেছে। অনেকটা কাটছাঁট করে ইফতারসামগ্রী কিনছে মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষ।

কিশোরগঞ্জ শহরে অবস্থিত অভিজাত রেস্তোরাঁ হিসেবে পরিচিত ‘গাংচিল’। সেখানে শুক্রবার (২২ মার্চ) কথা হয় ইফতারসামগ্রী কিনতে আসা আইনজীবী মো. আবুল কাসেমের সঙ্গে। প্রতিদিনের বাংলাদেশকে তিনি বলেন, ‘এখানে অনেককে দেখলাম– টিক্কা কাবাব, চিকেন তান্দুরি ও বোরহানির মতো খাবার বাদ দিয়ে ইফতার কিনছেন।’

সরকারি চাকরিজীবী আলাউদ্দিন বলেন, ‘বেতনের টাকা শেষ। হাতে টাকা নেই। বাজারে অনেক পণ্যের দাম বাড়তি। তাই ইফতারিতে কাটছাঁট করতে বাধ্য হয়েছি।’

শহরের স্টেশন রোডের জয়কালী রেস্তোরাঁয় ইফতার কিনতে আসা গৃহিণী নার্গিস আরা বলেন, ‘সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবার শুধু খেজুর আর ছোলা-মুড়ি দিয়ে ইফতার করব। মজাদার ইফাতার আইটেম আমাদের কপালে নেই।’

কিশোরগঞ্জের বিভিন্ন বাজারে দেখা যায়– ছোলা প্রতি কেজি ১৬০ টাকা, মজাদার রেশমি জিলাপি ৪০০ টাকা কেজি, বোম্বে জিলাপি ২৫০ টাকা, শাহী হালিম ৩৮০ টাকা, জালি কাবাব ৩৫ টাকা, টিক্কা কাবাব ৫০ টাকা, শামী কাবাব ৩৫ টাকা, ডিম চপ ২০ টাকা, সাসলিক ১০০ টাকা, চিকেন তান্দুরি ১৫০ টাকা, চিকেন বারবিকিউ ১৬০ টাকা, চিকেন ফ্রাই ১৬০ টাকা, চিকেন চাপ ৮৫ টাকা, স্পেশাল চাপ ১৪০ টাকা, বুন্দিয়া ২৫০ টাকা, বোরহানি ২৬০ টাকা এবং তেহারি ৩৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

আগের বছরের সঙ্গে তুলনা করে এবার রমজানে বাজারে পণ্যের দাম নিয়ে অসাধু ব্যবসায়ীদের কারসাজিকে দায় করেছে অনেক ক্রেতা। সরকারি একটি দপ্তরের নিম্নমান সহকারী হিসেবে কর্মরত আসাদ মিয়া বলেন, ‘ইফতার বাজারে দাম ও মান দেখে সন্তুষ্ট হতে পারিনি। ব্যবসায়ীরা সবকিছুতেই বেশি লাভ করতে চায়। আমার আর্থিক সাধ্যও নেই। ইফতারিতে বেশ কয়েকটি আইটেম বাদ দিতে হয়েছে। বাধ্য হয়ে সামান্য আয়োজনে ইফতার সাজিয়েছি।’

তবে ইফতারসামগ্রীর দাম বৃদ্ধির পেছনে নিত্যপণ্যের বাজারের কারসাজিকে দায়ী করছেন রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ীরা। তাদের দাবি– নিত্যপণ্যের দাম বেশি হওয়ায় ইফতারসামগ্রীতে এর প্রভাব পড়েছে।

গাংচিল রেস্তোরাঁর মালিক আবু সাঈদ জানান, তারা বাজার থেকে কাঁচামাল কিনে ইফাতারসামগ্রী তৈরি করেন। সামান্য লাভ ধরে ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করে থাকেন। এবার সবকিছুর দাম বেশি। এ কারণে ইফতারসামগ্রীর দামও বেড়ে গেছে।  

তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রধান ক্রেতা সাধারণ মধ্যবিত্ত ও উচ্চ মধ্যবিত্ত। এই শ্রেণির লোকজনও আগের চেয়ে কমিয়ে ইফতার কিনছে।’

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: [email protected]

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা