× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

কেন্দ্রে ঢুকে নকল সরবরাহ করতেন মাদ্রাসার শিক্ষক

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২৩:২৪ পিএম

আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২৩:২৬ পিএম

গ্রেপ্তার মাদ্রাসার শিক্ষক সারোয়ার হোসেন সেলিম। প্রবা ফটো

গ্রেপ্তার মাদ্রাসার শিক্ষক সারোয়ার হোসেন সেলিম। প্রবা ফটো

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় দাখিল পরীক্ষার একটি কেন্দ্রে প্রকাশ্যে অসদুপায় অবলম্বনের অভিযোগ উঠেছে। কেন্দ্র পরিচালনার দায়িত্বে থাকা শিক্ষকের যোগসাজশে মাওলানা আসাদ আলী ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটেছে। জড়িত থাকার অভিযোগে স্থানীয় একটি মাদ্রাসার শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সারোয়ার হোসেন সেলিম নামে ওই শিক্ষক দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেওয়ার পর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

পরীক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আসাদ আলী ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে এবার দাখিল পরীক্ষা শুরুর পর থেকেই প্রকাশ্যে নকল ও এমসিকিউ পরীক্ষার উত্তরপত্র সরবরাহের অভিযোগ ওঠে। এর মধ্যে গত রবিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বাংলা প্রথম পত্র পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে একটি অডিও এবং ভিডিও রেকর্ডিং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ পায়। বিষয়টি নিয়ে হৈচৈ শুরু হলে ওই দিনই অভিযান চালিয়ে আসাদ আলী কলেজ কেন্দ্র থেকে বহিরাগত সারোয়ার হোসেন সেলিমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তিনি স্থানীয় দরগাবাড়ি পৌর দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক এবং আসাদ আলী কলেজ কেন্দ্রের সচিব সিদ্দিকুর রহমানের সহকারী। 

পরীক্ষার্থী ও ওই কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনকারী অন্য শিক্ষকরা জানান, এ কেন্দ্রে এবার প্রতিটি পরীক্ষায় গণহারে নকল সরবরাহ ও উত্তর বলে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এজন্য পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে আড়াইশ করে টাকা নেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। কেন্দ্র সচিব সিদ্দিকুর রহমান উর্ধতন দুই কর্মকর্তার মদদে বহিরাগত লোকজনকে ভেতরে এনে এসব কর্মকাণ্ড করাচ্ছেন। তিনি এমসিকিউ পরীক্ষার নির্দিষ্ট কোড ফিলাপ করান এবং বহিরাগত শিক্ষক ভেতরে এনে উত্তরপত্র পূরণ করান। কেউ প্রতিবাদ করলে উল্টো হেনস্থা করেন। গ্রেপ্তার হওয়া সেলিম এমসিকিউ পরীক্ষার উত্তর বলে দিচ্ছেন এমন একটি রেকর্ড প্রকাশ হয়ে যাওয়ায় বিষয়টি জানাজানি হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত সিদ্দিকুর রহমান বক্তব্য দিতে রাজি হননি। 

মাধবপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম বলেন, নকল সরবরাহের সময় সেলিমকে হাড়তেনাতে ধরা হয়েছে। এ ঘটনায় আরও তদন্ত চলছে। কেন্দ্র সচিবের জড়িত থাকার বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একেএম ফয়সাল জানান, গ্রেপ্তার হওয়া শিক্ষক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযোগ স্বীকার করেছেন। 

মাধবপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতিকুর রহমান জানান, এ ঘটনায় রবিবার রাতে কেন্দ্রসচিব সিদ্দিকুর রহমান বাদী হয়ে মামলা করেছেন। গ্রেপ্তার সেলিমকে সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) আদালতে হাজির করার পর বিচারক তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। 

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: [email protected]

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা