× ই-পেপার প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজনীতি দেশজুড়ে বিশ্বজুড়ে বাণিজ্য খেলা বিনোদন মতামত চাকরি ফিচার চট্টগ্রাম ভিডিও সকল বিভাগ ছবি ভিডিও লেখক আর্কাইভ কনভার্টার

২৯ মামলার আসামি ব্রাজিল খুনের নেপথ্যে

যুবদলে পদ পেয়ে বেপরোয়া রেষারেষিতে গেল প্রাণ

বগুড়া অফিস

প্রকাশ : ১১ জুন ২০২৪ ১১:৩৫ এএম

বিরাজুল হয়েছেন ব্রাজিল। প্রবা ফটো

বিরাজুল হয়েছেন ব্রাজিল। প্রবা ফটো

বিরাজুল হয়েছেন ব্রাজিল। ছিলেন সবজি বিক্রেতা, জড়িয়েছেন অপরাধ জগতে। দাদন থেকে মাদক কারবার, চাঁদা থেকে দখলবাজি- সবখানেই বিচরণ তার। এসব সঙ্গী করেই বনে গেলেন রাজনৈতিক দলের নেতা। ক্ষমতার পাল্লা আরও ভারী হয়ে উঠল। যেন বেপরোয়া অপকর্মের মাত্রায় যোগ হলো নতুন পালকের। একের পর এক অপরাধে অভিযুক্ত হয়ে নাম ওঠে ২৯টি মামলায়- পুলিশের খাতায় তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। গত শনিবার তিনি খুন হয়েছেন। তাকে মাথা থেকে পা পর্যন্ত কুপিয়ে হত্যা নিশ্চিত করে দুর্বৃত্তরা। সুরতহাল প্রতিবেদনে মৃত্যুর কারণ- অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ উল্লেখ করে চিকিৎসক বলেছেন, তার দেহে অসংখ্য কোপের চিহ্ন রয়েছে।

ব্রাজিলের আসল নাম বিরাজুল ইসলাম। তার বাড়ি বগুড়া শহরের দক্ষিণ গোদারপাড়া এলাকায়। কাহালু উপজেলার মুরইল ইউনিয়নের পোড়াপাড়া এলাকার তালুকদারপাড়া মোড়ে ব্রাজিল খুনের ঘটনায় গতকাল রবিবার মামলা হয়েছে। তার মা আটজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতপরিচয় ৭-৮ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেছেন। মামলা তদন্ত করছে বগুড়ার কাহালু থানা-পুলিশ। গতকাল সোমবার বিকাল পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।

তদন্তসংশ্লিষ্ট পুলিশের এক কর্মকর্তা প্রতিদিনের বাংলাদেশকে জানান, এই হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে রয়েছে মূলত এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকেন্দ্রিক দ্বন্দ্ব। এর জেরে অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয় ব্রাজিলকে। চাঁদাবাজি, দখলবাজি, মাদক কারবারসহ অপরাধ জগতের অনেক প্রতিদ্বন্দ্বীর পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। সেই প্রতিদ্বন্দ্বীরাই পরিকল্পনা অনুযায়ী ব্রাজিলেরই গড়ে তোলা ‘আস্তানা এলাকায়’ তাকে খুন করেন।

অপরাধ জগতে উত্থান : আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও স্থানীয় সূত্রমতে, ব্রাজিলের বাবা ছিলেন শহরের সবজি ব্যবসায়ী। গোদারপাড়া বাজারে সবজি বিক্রি করতেন তিনি। বাবার সঙ্গে একসময় যুক্ত হন ব্রাজিল। শুরু করেন সবজি ব্যবসা। এর ফাঁকেই ধীরে ধীরে পা বাড়াতে থাকেন মাদক কারবার, দাদন কারবার, দখলবাজি, চাঁদাবাজিতে। এমনকি ভাড়াটে সন্ত্রাসীর ভূমিকায়ও ছিলেন তিনি। খুচরা সবজি বিক্রেতা থেকে হয়ে ওঠেন এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী।

ব্রাজিলের অপকর্মের পালে আরও হাওয়া লাগে রাজনৈতিক দলের সমর্থনে। এলাকার চিহ্নিত অপরাধী ব্রাজিল বনে যান যুবদল নেতা। শহরের ১৫, ১৬ ও ১৭ নম্বর ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত চারমাথা বন্দর যুবদলের সভাপতির দায়িত্ব পান তিনি। পদ পেয়েই বেপরোয়া হয়ে ওঠেন তিনি। নেতা হওয়ার পর থেকে বহন করতেন অবৈধ অস্ত্র। অ্যাসিড নিক্ষেপ, ভাঙচুর, নাশকতা, ককটেল হামলাসহ নানা অপরাধে যুক্ত হয় ব্রাজিলের নাম।

খোলস বদলানোর অপচেষ্টা : সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ব্রাজিলের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেন গোদারপাড়া এলাকার বাসিন্দারা। তার বিরুদ্ধে তিন বছর আগে এলাকাবাসী প্রতিরোধ গড়ে তোলেন।

এলাকা ছাড়তে বাধ্য হন ব্রাজিল। আত্মগোপনে গিয়ে বসবাস শুরু করেন কাহালু উপজেলার মুরইল ইউনিয়নের পোড়াপাড়া গ্রামে। 

অপরাধ জগতে নিজের অবস্থান ধরে রাখতে আত্মগোপন থেকেই শুরু হয় ব্রাজিলের অপতৎপরতা। প্রকাশ্যে আসার পর নতুন অপকৌশল নেন তিনি। ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে সখ্য গড়ে তোলার প্রচেষ্টা চলে তার।

শেষে দখলকাণ্ডের জের হত্যাকাণ্ড : থানা-পুলিশ জানিয়েছে, সবশেষ চলতি বছর চাঁদাবাজি ও দখলবাজির একটি মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে যান ব্রাজিল। সম্প্রতি জেল থেকে ছাড়া পান। নিজের জন্মস্থান শহরের গোদারপাড়া এলাকা ছেড়ে আসা কাহালুর পোড়াপাড়াতেই থাকছিলেন তিনি। চলাফেরা করছিলেন কিছুটা নমনীয়ভাবে। আদতে ব্রাজিল পোড়াপাড়ায় অবস্থান নিয়েই চালাচ্ছিলেন নিজের অপরাধ সাম্রাজ্য। একটু পেছনের ঘটনাই ছিল বেশ দুর্ধর্ষ। যে মামলায় সবশেষ ব্রাজিল কারাভোগ করেন, তা ছিল মাছের খামার দখলকেন্দ্রিক। পোড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদেরই এক সদস্যের মাছের খামার দখলে নিয়েছিলেন ব্রাজিল। কারাভোগের সময় এই খামারের পুকুরে বিষ প্রয়োগের ঘটনা ঘটে। জেল থেকে বের হওয়ার পর এই ঘটনা ঘিরে ব্রাজিলের সঙ্গে অপরাধ জগতের দ্বন্দ্ব তীব্র হতে থাকে।

পরিবার ও পুলিশের ভাষ্য : খুনের ঘটনায় এজাহারে ব্রাজিলের মা যে দাবি করেছেন, তাতে ধারণা পাওয়া যায়Ñ একটি রাজনৈতিক দল ছেড়ে বিরোধী শিবিরে ঝুঁকে পড়া এবং দখলকেন্দ্রিক দ্বন্দ্বের জেরে খুন হয়েছেন ব্রাজিল। 

ব্রাজিলের স্ত্রী পপি খাতুন বলেন, আমার স্বামী রাজনীতি থেকে সরে আসতে চেয়েছিলেন। এ কারণে তার শত্রু তৈরি হয়। সেই শত্রুরা আমার স্বামীকে হত্যা করেছে। শনিবার রাতে মোটরসাইকেলে বাড়িতে ফিরছিলেন। বাড়িতে প্রবেশের দুই মিনিট দূরত্বের পথে তার গতিরোধ করে এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে। আমার স্বামী দৌড়ে প্রতিবেশীদের বাড়িতে আশ্রয় নেওয়ার চেষ্টা করেন। তার পিছু নিয়ে সেখানে গিয়ে কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়।

ব্রাজিলের নামে অস্ত্র, বিস্ফোরক, মাদক, সন্ত্রাসবিরোধী বিভিন্ন আইনে ২৯টি মামলা রয়েছে জানিয়ে কাহালু থানার ওসি সেলিম রেজা বলেন, তার খুনের নেপথ্যে আধিপত্য বিস্তারকেন্দ্রিক দ্বন্দ্ব প্রাথমিকভাবে ধরে নেওয়া হচ্ছে। তার মা হত্যা মামলা করেছেন। আমরা তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছি। তদন্তের স্বার্থে এখনই আসামিদের পরিচয় প্রকাশ করা যাচ্ছে না।

শেয়ার করুন-

মন্তব্য করুন

Protidiner Bangladesh

সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশক : কাউসার আহমেদ অপু

রংধনু কর্পোরেট, ক- ২৭১ (১০ম তলা) ব্লক-সি, প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড) ঢাকা -১২২৯

যোগাযোগ

প্রধান কার্যালয়: +৮৮০৯৬১১৬৭৭৬৯৬ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (প্রিন্ট): +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন (অনলাইন): +৮৮০১৭৯৯৪৪৯৫৫৯ । ই-মেইল: [email protected]

সার্কুলেশন: +৮৮০১৭১২০৩৩৭১৫ । ই-মেইল: [email protected]

বিজ্ঞাপন মূল্য তালিকা